Wednesday, June 19, 2024
HomeBreakingমোবাইলের দোকান থেকে চুরি করা ১৪ টি মোবাইলসহ উদ্ধার নাবালক।

মোবাইলের দোকান থেকে চুরি করা ১৪ টি মোবাইলসহ উদ্ধার নাবালক।

নিজস্ব সংবাদদাতা ,শিলিগুড়ি ২৫ মার্চ: মাত্র ১৬ বছর বয়সেই পুলিশের খাতায় নাম উঠে গেল শিলিগুড়ি ঠাকুরনগরের এক কিশোরের। নিমেষের মধ্যে চুরির ঘটনায় সিদ্ধ হস্ত সে। এর আগেও ছোটখাটো অপরাধের ঘটনায় অভিযুক্ত ওই নাবালক এবার

মোবাইলের দোকানের চাল কেটে সিলিং ভেঙে দোকানে ঢুকে নতুন ১৫ টি মোবাইল ফোন নিয়ে চম্পট দিয়েছিল । গত ২১ তারিখ এই মোবাইলের দোকানে চুরির ঘটনায় রাতের ঘুম উড়েছিল শিলিগুড়ি মেট্রোপলিটন পুলিশের নিউ জলপাইগুড়ি থানার পুলিশের। একই দিনে নিউ জলপাইগুড়ি থানা এলাকার ফুলবাড়িতে বেশ কয়েকটি বাড়িতে চুরির চেষ্টা এবং একটি বাড়িতে ছিনতাই এর ঘটনা ঘটে। সব মিলিয়ে নিউ জলপাইগুড়ি থানার পুলিশ কার্যত চাপে পড়ে যায়। বিভিন্ন সূত্র কে কাজে লাগিয়ে দুটি অপ্রীতিকর ঘটনারই তদন্তে নামে নিউ জলপাইগুড়ি থানার প্লেন ক্লথস পার্টির পুলিশ। অবশেষে মিলে গেল সাফল্য। বিভিন্ন সুত্রকে কাজে লাগিয়ে নিউ জলপাইগুড়ি থানা এলাকার ঠাকুরনগরের মোবাইলের দোকানের চুরির ঘটনার অভিযুক্তকে ধরে ফেলল নিউ জলপাইগুড়ি থানার প্লেন ক্লথস পার্টির পুলিশ।নিউ জলপাইগুড়ি থানার পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে এই ঘটনায় উদ্ধার হেফাজতে নেওয়া চোর নাবালক, সে ঠাকুরনগরেরই বাসিন্দা। অভিযুক্ত স্বীকার করেছে সে ২১ তারিখ রাতে ঠাকুরনগরের ওই মোবাইলের দোকানের চাল কেটে ভেতরে ঢুকে মোট ১৫ টি মোবাইল চুরি করে ,আর তার থেকে একটি মোবাইল ইতিমধ্যে বিক্রি করে ফেলে। পুলিশ বিভিন্ন সূত্র কে কাজে লাগিয়ে অভিযুক্তকে পাকড়াও করে বাকি ১৪ টি মোবাইল উদ্ধার করতে সমর্থ হয়েছে। অতি দ্রুত তদন্তে এই সাফল্য মেলায় “পুলিশ কিনা পারে এ কথাই বলছে সবাই”। অপরদিকে অভিযুক্ত ওই নাবালক সবকটি মোবাইল চুরি করে একটি পরিত্যাক্ত বাড়িতে লুকিয়ে রেখেছিল। প্ল্যানিং ছিল যখন যখন টাকার দরকার হবে সে একটি একটি করে মোবাইল বিক্রি করবে। কেবলমাত্র চুরি করার ঘটনার পরেরদিন একটি মোবাইল বিক্রি করে সেই টাকা দিয়েই চলা শুরু করেছিল সে। পাশাপাশি ওই মোবাইলের দোকান থেকে চুরি করার সময় সে পেয়েছিল এক হাজার টাকা। সেই এক হাজার টাকা দিয়ে বাকি ১৪ টি মোবাইলে টেম্পার গ্লাস এবং কভার পর্যন্ত লাগিয়ে ফেলেছিল সে। এরপর চুরি করে নিয়ে আসা প্রতিটি মোবাইল বন্ধ করে ওই পরিত্যক্ত বাড়িতে একটি প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগ এর মধ্যে ভরে রেখেছিল অভিযুক্ত নাবালক। নিউ জলপাইগুড়ি থানার পুলিশ অভিযুক্তকে উদ্ধার করে সোমবার জলপাইগুড়ি যুবেনাইল কোর্টে পাঠায়। এখন কেবলমাত্র চুরির পরের দিনে বিক্রি করে দেওয়া একটি মোবাইল উদ্ধার করার চেষ্টায় রয়েছে নিউ জলপাইগুড়ি থানার পুলিশ, কিন্তু মাত্র ১৬ বছর বয়সে চুরিতে সিদ্ধ হস্ত এই কিশোরকে নিয়ে চিন্তায় নিউ জলপাইগুড়ি থানার পুলিশ।

RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments